সংবাদ শিরোনাম :
জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ৬ষ্ঠ চিকিৎসা সেবা প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত জালালাবাদ এসোসিয়েশনের পঞ্চম চিকিৎসা সেবা প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত জালালাবাদ এসোসিয়েশনের চতুর্থ চিকিৎসা সেবা প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত জালালাবাদ এসোসিয়েশনের তৃতীয় চিকিৎসা সেবা প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত জালালাবাদ এসোসিয়েশনের দ্বিতীয় চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম অনুষ্ঠিত জালালাবাদ এসোসিয়েশন, ঢাকা’র পুনর্বাসন কার্যক্রমে সায়হাম গ্রুপের ১০ লক্ষ টাকা অনুদান জালালাবাদ এসোসিয়েশনের ত্রাণ বিতরণ আবুল মাল আব্দুল মুহিতের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শোক বিশ্বময় জালালাবাদ সম্প্রীতির বন্ধন ড. সৈয়দ মকবুল হোসেনের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শোক

পীর হাবিবের মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের শোক

জালালাবাদের কৃতি সন্তান, বরেণ্য সাংবাদিক, রাজনীতি বিশ্লেষক , কলামিস্ট ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান শনিবার বিকেল ৪টা ৮ মিনিটের দিকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন)

তাঁর মৃত্যুতে জালালাবাদ এসোসিয়েশনের সভাপতি ড. এ কে আব্দুল মুবিন, সাধারণ সম্পাদক এড. জসিম উদ্দিন আহমেদ, জালালাবাদ ভবন ট্রাস্টের চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ চৌধুরী ও সেক্রেটারি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী এবং জালালাবাদ শিক্ষা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন ও সেক্রেটারি জালাল আহমদ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

শোক বার্তায় তারা বলেন, সুনামগঞ্জে জন্ম নেওয়া পীর হাবিবুর রহমানের মৃত্যু দেশের গণমাধ্যম জগতের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি । দেশে সাংবাদিকতার উন্নয়ন , বিকাশ ও প্রসারে তাঁর ভূমিকা সংবাদকর্মীগণ চিরদিন শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। তিনি জালালাবাদ এসোসিয়েশনের বিভিন্ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন এবং সিলেট অন্তঃপ্রাণ হিসেবে সিলেটের যেকোন ন্যায্য দাবীর ক্ষেত্রে সোচ্চার ছিলেন।

তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

পীর হাবিবুর রহমান ক্যান্সার আক্রান্ত ছিলেন। গত বছর অক্টোবরে মুম্বাই জাসলুক হাসপাতালে বোনম্যারো ট্রান্সপ্লান্টেশনের মাধ্যমে ক্যানসার মুক্ত হন। ২২ জানুয়ারি তিনি করোনাভাইরাস আক্রান্ত হন। বিশিষ্ট চিকিৎসক অধ্যাপক এবিএম আব্দুল্লাহর পরামর্শে ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন। করোনামুক্ত হওয়ার পর কিডনি জটিলতার কারণে তাকে ভর্তি হতে হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় স্ট্রোক করলে তাকে ল্যাবএইড হাসপাতালের আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

পীর হাবিবুর রহমানের জন্ম ১৯৬৩ সালের ১২ নভেম্বর সুনামগঞ্জ শহরে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালে ১৯৮৪ সাল থেকে সাংবাদিকতায় তার হাতেখড়ি নেন। রিপোর্টার হিসেবে দৈনিক বাংলাবাজার, যুগান্তর, মানবকণ্ঠ, আমাদের সময় পত্রিকায় কাজ করেছেন। রাজনৈতিক ও পার্লামেন্ট বিষয় রিপোর্টার হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন। কিছু দিন তিনি অনলাইন মাধ্যমে কাজ করেন। তিনি নিউজপোর্টাল পূর্বপশ্চিমবিডি.নিউজের প্রতিষ্ঠাতা। সর্বশেষ বর্তমানে বাংলাদেশ প্রতিদিনের নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও কলামিস্ট হিসেবে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন।

প্রকাশিত বই
সাংবাদিকতার অভিজ্ঞতা থেকে অনেকগুলো বই লিখেছেন পীর হাবিবুর রহমান। তার বইগুলো পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে। উল্লেখযোগ বইয়ের মধ্যে রয়েছে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা ‘পোয়েট অব পলিটিক্স’, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা : অজানা ইতিহাস’, দেশের শীর্ষ রাজনৈতিক নেতাদের নিয়ে ‘এক্সক্লুসিভ’, সাংবাদিকতার অভিজ্ঞতা নিয়ে ‘খবরের বারান্দা’, ‘টক অফ দ্য প্রেস’, ‘অফ দ্য রেকর্ড’, রাজনৈতিক কলাম সংকলন ‘রাজনীতির শেষ পেরেক’, ‘ভিউজ আনকাট’, উপন্যাস ‘জেনারেলের কালো সুন্দরী’, ‘বুনোকে লেখা প্রেমপত্র’, ‘মন্দিরা’ প্রভৃতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ জাতীয় আরো খবর..